ছবি: সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিনিধি:

২০১৯ সালের শেষের দিকে থেকে শুরূ করে এখনো পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসের চলছে তান্ডব লীলা। প্রতিদিন ই মানুষ বিভিন্ন অসতর্কতার কারণে আক্রান্ত হচ্ছে এই ভাইরাসে। বাংলাদেশে ও এর প্রোকোপ কম না । বাংলাদেশেও প্রতি নিয়ত মারা যাচ্ছে মানুষ এবং আক্রান্ত হচ্ছে হাজার হাজার মানুষ।

বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এই মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে। বাংলাদেশে বন্ধ রাখতে হয়েছে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ১.৫ বছর ।যা বিশ্বের ইতিহাসে বিরল।

আজ যুক্তরাষ্ট্রের জনস হিপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য প্রকাশনায় দেখা যায় , বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসের মৃতের সংখ্যা ৪৫ লাখ ৪১ হাজার ১৪০ জন। এবং মোট আক্রান্ত হয়েছে ২১ কোটি ৮৩ লাখ ২৭ হাজার ৯৮১ জনে।

আমেরিকার পরিস্থিতি:

এ পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে মোট করোনা ভাইরাসের টিকা দেওয়া হয়েছে ৫৩২ কোটি ৬৬ লাখ ৫০ হাজার ৯৪৪ ডোজ। করোনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে আমেরিকা। এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট আক্রান্ত হয়েছে ৩ কোটি ৯৩ লাখ ৮৮ হাজার ৯০৯ জন । এবং এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৪২ হাজার ৪ জন ।এবং এখনো আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ।

ব্রাজিলের পরিস্থিতি:

অপরদিকে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে মোট আক্রান্ত ২ ,০৮,০৪,২১৫ জনে। এবং মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫,৮১,৯১৫ জন। এ পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী দেশটি মৃত্যুর হারের দিক দিয়ে দেশটির অবস্থান ২য়।

ভারতের পরিস্থিতি:

ভারতে মোট আক্রান্ত হয়েছে ৩, ২৮,১০,৮৪৫ ( ৩ কোটি ২৮ লাখ ১০ হাজার ৮৪৫) এ তথ্য অনুযায়ী দেশটি আক্রান্তের ২য় স্হানে আছে। এবং মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪,৩৯,০২০(৪ লাখ ৩৯ হাজার ২০)জনে। ভয়াবহ আকার নিচ্ছে দিন‌ দিন।

ওই

বাংলাদেশের পরিস্থিতি:

এ পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী বাংলাদেশে ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়ে মারা গেছে আরও ৭৯ জন। এসময় নতুন করে আরও শনাক্ত করা হয়েছে ৩০৬২ জন। এবং নতুন মৃত্যু সহ দেলে মোট মৃত্যুর সংখ্যা হয়েছে ২৬,২৭৪(২৬ হাজার ২৭৪) জন। এবং আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ৩ হাজার ৬৮০ জনে।

স্বাস্হ অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ ঘন্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩০২৯৪ । পরীক্ষায় শনাক্তের হার ১০.১১% এবং করোনায় দেশে মৃত্যুর হার ১. ৭৫% । এবং এ পর্যন্ত সুস্হ হয়েছেন ১৪ লাখ ৩১ হাজার ৯৮৪ জন।সু্স্হতার হার

৯৫.২৩ % ।। এবং গত ২৪ ঘন্টায় ঢাকা বিভাগে মারা গেছে আরও ২৮ জন।

বিশ্ব স্বাস্হ্য সংস্থা করোনা মোকাবেলায় যে বিধি নিষেধ গুলো দিয়েছেন সেগুলো নিচে দেওয়া হলো:

১. মাস্ক ব্যবহার: মহামারী করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় যেসকল পদক্ষেপ আছে তার মাঝে অন্যতম একটা হলো মাস্ক ব্যবহার করা। মহামারী করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় আপনাকে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে।

২. ভ্যাকসিন গ্রহণ: বর্তমানে যে ভ্যাকসিন গুলো এসেছে সেগুলো করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় কার্যকর বলে জানিয়ে বিশ্ব স্বাস্হ্য সংস্থা। তারা বিশ্ববাসীর কাছে আবেদন রেখেছেন ভ্যাকসিন গ্রহণ করার এ লক্ষ্যে বাংলাদেশ ও ভ্যাকসিন গ্রহণের কার্যক্রম গ্রহণ করেছে।

৩. স্বাস্থ্যসম্মত খাবার গ্রহণ: করোনা ভাইরাস থেকে নিজেকে রক্ষা করার জন্য শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা থাকা প্রয়োজন। আর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য পুষ্টিকর ভাবার খাওয়ার কথা বলছে বিশ্ব স্বাস্হ্য সংস্থা।

৪. হাত ধোয়া : করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় আপনাকে অবশ্যই সাবান অথবা হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করে হাত ধুতে হবে।

করোনা করোনায় আক্রান্ত হলে করণীয়:

১. ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা নিতে হবে।

২. কোনো অবস্থাতেই মাস্ক ব্যবহার বাদ দেওয়া যাবে না। তাহলে ভাইরাস বিস্তার লাভ করতে পারবে না।

৩.গরম চা/ জল খেতে হবে নিয়মিত।

আশা করি উপরের নিয়ম মেনে চললে আমরা করোনা মোকাবেলা করতে পারব। তাই নিজে সচেতন হোন‌ এবং অন্যকে সচেতন করুন।

তথ্য সূত্র: বিশ্ব স্বাস্হ্য সংস্হা ।

নয়ন ইসলাম ( সাংবাদিক বাংলা নিউজ ডিজিটাল )

জেনে নিন কিভাবে ভ্যাকসিনের জন্য আবেদন করবেন বিস্তারিত জানতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন

জেনে নিন কিভাবে ভ্যাকসিনের জন্য আবেদন করতে হবে!!